৫ শ্রাবণ  ১৪২৬  রবিবার ২১ জুলাই ২০১৯ 

Menu Logo বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: প্রাপ্ত বয়স্কদের পর্নহাবের প্রতি একটা আলাদা টান যে থাকেই, মুখে না বললেও বিভিন্ন সমীক্ষায় তা প্রমাণিত৷ সমগ্র বিশ্বে বহু মানুষের রাতের সঙ্গী এই ওয়েবসাইট৷ নীল ছবির দুনিয়ায় গা ভাসাতে চান না, এমন কাউকে খুঁজে পাওয়া যে কষ্টকর হবে, তা বলার অপেক্ষা রাখে না৷ পর্নের ক্ষেত্রে বিভিন্ন মানুষের আলাদা আলাদা পছন্দ রয়েছে৷ আর এই পছন্দের ক্ষেত্রেই অন্যান্য সমস্ত দেশের পর্নছবিকে পিছনে ফেলে দিয়েছে ভারত৷ আরও স্পষ্ট করে বলতে গেলে ভারতীয় পর্ন ছবিগুলি৷ পর্নহাবের  নিজস্ব সমীক্ষা বলছে, তাদের গ্রাহকদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি মানুষ পছন্দ করেন ভারতীয় পর্নভিডিওগুলি দেখতে৷

[ আরও পড়ুন: সম্পর্কে মিষ্টতা আনতে চান? সঙ্গীর সঙ্গে চুটিয়ে ঝগড়া করুন]

নিউ ইয়র্ক, লন্ডন, প্যারিস ও টরেন্টোর মতো বিশ্বের ২০টি শহরে সমীক্ষা চালিয়ে এই সিদ্ধান্তে পৌঁছেছে পর্নহাব৷ সংস্থাটি জানিয়েছে, নিউ ইয়র্কে বসবাসকারী পর্নহাবের ৫৭ শতাংশ গ্রাহক অন্যান্য দেশের পর্নোগ্রাফির তুলনায়, ভারতীয় পর্ন দেখতে বেশি পছন্দ করেন৷ লন্ডনে বসবাসকারী পর্নহাবের ৪২ শতাংশ উপভোক্তা, ভারতীয় নীল ছবির ভক্ত৷ প্যারিসের বসবাসকারী পর্নহাবের ৭৬ শতাংশ গ্রাহক এবং টরেন্টোর ৯২ শতাংশ গ্রাহক ভারতীয় পর্নছবি দেখতেই বেশি ভালবাসেন৷ এছাড়া সংস্থার আরও একটি সমীক্ষা বলছে, চলতি বছরে পর্ণহাবের গ্রাহক সংখ্যায় এখনও পর্যন্ত শীর্ষে নিউ ইয়র্ক৷ এরপর দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থানে রয়েছে লন্ডন ও প্যারিস৷

[ আরও পড়ুন: হাসফাঁস গরমে আপনার যৌনক্ষমতা বাড়াতে পারে এই ফলটি ]

সমগ্র বিশ্বে ভারতীয় পর্নছবি এগিয়ে থাকলেও, নীলদুনিয়ার হাতছানিতে গা ভাসানো এদেশের পর্নপ্রেমীদের পক্ষে নেহাত সহজ না। কারণ সরকারি নির্দেশে ভারতে বন্ধ হয়েছে ৮২৭ টি পর্ন সাইট। যার জেরে অলীক সুখ থেকে বঞ্চিত হতে হয়েছে ভারতের লক্ষ লক্ষ পর্নপ্রেমী। তবে শুধু পর্নপ্রেমীরা নন, বঞ্চিতদের তালিকায় আছে পর্ন সাইটগুলিও। ভারতের মতো বড় দেশে ওয়েবসাইট বন্ধ হয়ে যাওয়ায় গ্রাহক সংখ্যা একলাফে অনেকটা কমেছে পর্নহাব ও এক্সভিডিও-র মতো বড় বড় সাইটগুলির। 

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং