বেতনের ২৫ % খোরপোশ দিতে হবে প্রাক্তন স্ত্রীকে, নির্দেশ সুপ্রিম কোর্টের

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ভালবাসার পথ হামেশা মধুর হয় না৷ মাঝে বিচ্ছেদও আসে৷ আর এই বিচ্ছেদের মূল্য কম-বেশি সকলকেই চোকাতে হয়৷ হ্যাঁ, পারস্পরিক বোঝাপড়ার মাধ্যমে অনেকেই লেনদেন মিটিয়ে নেন৷ কিন্তু দাবি যখন খুব বেশি কিংবা খুব কম হয়, তখনই বাধে বিপত্তি৷ এই বিপত্তির বড় বড় নমুনা এসেছে প্রকাশ্যে৷ স্বয়ং হৃতিক রোশনের কাছে নাকি খোরপোশ হিসেবে ৪০০ কোটি টাকা দাবি করেছিলেন প্রাক্তন স্ত্রী সুজান খান৷ খোরপোশের এই মামলায় বিধস্ত টেনিস লেজেন্ড লিয়েন্ডার পেজও৷ রিয়া পিল্লাইকে নাকি মাসিক ৪ লক্ষ টাকা দিতে হয় লি’কে৷ করিশ্মা-সঞ্জয় কাপুরের রফা হয়েছিল ৭ কোটি টাকায়৷

[নিকৃষ্টমানের ওষুধ কম্বিফ্লেম ও ডি কোল্ড, জানাল ড্রাগ কন্ট্রোল]

এ তো গেল সেলিব্রিটিদের কাহিনি৷ সাধারণ মানুষের কী হবে? শুক্রবার সেই প্রশ্নেরই উত্তর দিল সুপ্রিম কোর্ট৷ দেশের শীর্ষ আদালত জানিয়ে দিল, বিবাহবিচ্ছেদের পর স্বামীকে তাঁর মোট বেতনের ২৫ শতাংশ খোরপোশ হিসাবে দিতে হবে প্রাক্তন স্ত্রীকে৷ বিবাহবিচ্ছিন্না মহিলাদের ভরণপোষণে ও সম্মান নিয়ে সমাজে বেঁচে থাকতে এই অর্থের পরিমাণই যথাযথ বলে জানিয়েছে সর্বোচ্চ আদালত৷

পশ্চিমবঙ্গেরই এক মামলার পরিপ্রেক্ষিতে এই রায় দিয়েছে শীর্ষ আদালত৷ ২০০৩ সাল থেকে প্রাক্তন স্ত্রীর সঙ্গে খোরপোশ নিয়ে মামলা চলছে হুগলির ওই ব্যক্তির৷ প্রথমে জেলা আদালত খোরপোশের পরিমাণ মাসে ৪,৫০০ টাকায় বেঁধে দিয়েছিল৷ এরপর ২০১৫ সালে কলকাতা হাই কোর্টে সেই খোরপোশের পরিমাণ বাড়িয়ে করা হয় ১৬,০০০ টাকা৷ সেই সময় ওই ব্যক্তির বেতন ছিল ৬৩,৮৪২ টাকা৷ পরে তাঁর বেতন বেড়ে ৯৫,৫২৭ টাকা হলে গত বছর হাই কোর্ট খোরপোশের পরিমাণ বাড়িয়ে ২৩ হাজার টাকা করে দেয়৷ এই রায়ের বিরুদ্ধেই সুপ্রিম কোর্টে যান ওই ব্যক্তি৷ তাঁর যুক্তি ছিল, আবার বিয়ে করেছেন তিনি৷ সেই সংসারেরও খরচ রয়েছে৷ এই খোরপোশের পরিমাণ অত্যধিক৷

[দু’বছরের শিশুকে আছড়ে মেরে খুন করল মা-বাবা!]

হুগলির বাসিন্দার আবেদনের প্রেক্ষিতে বিচারপতি আর ভানুমতী ও এম এম সান্তাগৌড়ার বেঞ্চ জানায়, ‘স্বামীর মোট বেতনের ২৫ শতাংশ তাঁর প্রাক্তন স্ত্রীর জন্য যথাযথ৷ তাঁকে খোরপোশ হিসাবে যে টাকা দেওয়া হবে, তা তাঁর সামাজিক স্ট্যাটাস বজায় রাখতে সমর্থ হয়, সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে৷’ কলকাতা হাই কোর্টের খোরপোশ বাড়ানোর রায়কেও স্বাগত জানায় শীর্ষ আদালত৷

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *